মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভিজিডি

সেবা কিভাবে পাবেন

 

ভিজিডি কর্মসূচি 

 

খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার বিভিন্ন স্তরের উপর ভিত্তি করে বাংলাদেশের উপজেলাগুলোকে খুব বেশি খাদ্য নিরাপত্তাহীন, বেশি খাদ্য নিরাপত্তাহীন, মাঝারি খাদ্য নিরাপত্তাহীন এবং কম খাদ্য নিরাপত্তাহীন এমন চারটি ভাগে ভাগ করা হয়।

ভিজিডি মহিলা নির্বাচন

ইউপি সদস্যগণ প্রাথমিক তালিকা প্রণয়ন করেন।

ইউনিয়নের নির্বাচিত তিনজন মহিলা সদস্য ওই ইউনিয়নের মোট বরাদ্দকৃত কার্ডের ৫০% এর  প্রাথমিক তালিকা প্রণয়ন করেন।

নয়টি সাধারণ আসনের পুরুষ সদস্য বাকি ৫০% কার্ডের প্রাথমিক তালিকা চেয়ারম্যানের পরামর্শক্রমে তৈরি করেন।

ইউপি ভিজিডি কমিটি প্রাথমিক তালিকা পর্যালোচনার পর চূড়ান্ত  করে  ইউএনও’র নিকট দাখিল করে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা যৌথভাবে সঠিকতা যাচাই করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তালিকা চূড়ান্ত পর্যায়ে অনুমোদন করেন।

 

সেবা কারা পাবেন

 

ভিজিডি মহিলা নির্বাচনের শর্তাবলী

দুঃস্থ মহিলাদের মধ্য থেকে ভিজিডি মহিলা নির্বাচন করা হয় যারা: (ক) পরিবার প্রধান (খ) বিধবা/স্বামীর নিকট থেকে বিচ্ছিন্ন/স্বামী পরিত্যক্তা / তালাকপ্রাপ্তা (গ) অসুস্থ কর্মক্ষমতাহীন পঙ্গু স্বামীর স্ত্রী।

পূর্বের ভিজিডি কার্ডধারিণী কোন মহিলাকে নতুন করে নির্বাচন করা যায় না।

একটি পরিবার মাত্র একটি ভিজিডি কার্ড পায়।

যিনি অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের কর্মসূচি বা দলের আওতাভূক্ত যেমন-আর এম পি এবং এনজিও গ্রুপের সদস্যা, তিনি ইউপি ভিজিডি কর্মসূচীর সুবিধা পান না।

 

নির্বাচিত মহিলাদের দুঃস্থতার মাপকাঠি

ভূমিহীন অথবা ০.৫০ একরের চেয়ে কম জমির মালিকানা

যে সমস্ত মহিলার আয় অনিয়মিত, অতি সামান্য, অথবা কোনরকম পারিবারিক ব্যবস্থা নেই (মাসিক ৩০০ টাকার চেয়ে কম)

দিনমজুর বা সাময়িক মজুর

উৎপাদন করে আয় করা যায় এমন কোন সম্পদ নেই যার।

 

উপরোক্ত একটি বা একাধিক শর্তপূরণকারী মহিলাকে তালিকাভুক্ত করা যায়, তবে নিম্নোক্ত বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন প্রশিক্ষণযোগ্য মহিলারা অগ্রাধিকার পাবেন:-

দৈহিকভাবে যোগ্য

অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে সক্ষম

দলগতভাবে কাজ করতে আগ্রহী


Share with :

Facebook Twitter